আজ ১১ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৬শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

চট্রচট্টগ্রাম পোর্ট কলোনিতে গৃহবধূর আত্মহত্যা

আব্দুল করিম, চট্টগ্রাম জেলা থেকেঃ নগরীর বন্দর থানার পোর্ট কলোনিতে কুলসুম আকতার (২৭) নামে এক গৃহবধূ ‘আত্মহত্যা’ করেছেন। গত সোমবার রাতে এ ঘটনা ঘটে। তবে, নিহতের পিতা বজলুল হক দাবি করেছেন, তার মেয়েকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দিয়েছেন তার মেয়ের স্বামী ও সতীন। এ অভিযোগে তিনি গতকাল নিহতের স্বামী নেয়ামুল হক এবং সতীন মোছাম্মৎ শিখাকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন। পুুলিশ শিখাকে গ্রেপ্তার করেছে। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা এসআই হুমায়ুন, সাপ্তাহিক জনতার মিছিল কে বলেন, মোবাইল ডিউটিতে ছিলাম। রাত প্রায় সাড়ে তিনটার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ি থেকে খবর পেয়েছি, পোর্ট কলোনি থেকে একটি লাশ আনা হয়েছে। এরপর সেখানে উপস্থিত হয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করি।

আত্মহত্যা নাকি হত্যা-এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, ময়না তদন্ত রিপোর্ট না পাওয়া পর্যন্ত কিছু বলা যাচ্ছে না। তবে মেয়েটির গলায় দাগ ছিল এবং মেয়ের বাবা আত্মহত্যার প্ররোচনায় মামলা করেছেন। এর মধ্যে একজনকে গ্রেপ্তার করেছি।চমেক পুলিশ ফাঁড়ির এএসআই আমীর বলেন, রাত দেড়টার দিকে কুলসুম আকতারকে মুমূর্ষু অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে আসে শিখা। তবে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। শিখার দাবি ছিল, পারিবারিক কলহে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করেছে কুলসুম। নিহত কুলসুমের দেড় বছরের একটি সন্তান আছে।বন্দর থানা সূত্রে জানা গেছে, নিহত কুলসুমের বাবার বাসা খুলশী জালালাবাদ এলাকায়। পোর্ট কলোনির ৯ নম্বর রোডের আসমা খাতুনের বাসায় ভাড়াটিয়া হিসেবে স্বামীর সঙ্গে বসবাস করে আসছিলেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: