আজ ৪ঠা কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২০শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

অবশেষে রাঙ্গুনিয়ার গুলিবিদ্ধ অটোরিকশাচালক মারা গেছেন।

আব্দুল করিম চট্টগ্রাম থেকে: রাঙ্গুনিয়ায় মুখোশধারীদের অতর্কিত গুলিতে আহত সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক শাহেদুল ইসলাম (২৮) অবশেষে মারা গেছেন।
চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ৫ দিন ধরে চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ শুক্রবার (১৯ জুলাই) সকাল সাড়ে ১১টার দিকে মারা যান তিনি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সরফভাটা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী।লাশ ময়নাতদন্ত শেষে শুক্রবার স্থানীয় হাজারীখীল জামে মসজিদ মাঠে রাত ৮টায় তার জানাজার নামাজ শেষে স্থানীয় কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।এদিকে এ ঘটনায় ইতিপূর্বে অজ্ঞাত ২ আসামীকে বিবাদী করে রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা দায়ের করেছিলেন নিহতের মা ফাতেমা বেগম। মামলাটি এখন হত্যা মামলা হিসেবে পরিবর্তিত হবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।এর আগে গত রবিবার (১৪ জুলাই) রাত সাড়ে ৩টার দিকে উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের হাজারীখীল এলাকার ইসমাইল সিকদার কেজি স্কুলের পাশে অজ্ঞাত মুখোশধারীদের অতর্কিত গুলিতে আহত হন আবদুল গফুরের পুত্র ও সিএনজিচালিত অটোরিকশাচালক শাহেদুল ইসলাম (২৮)। তার কপালের ঠিক মাঝখানে গুলি লেগে গুরুতর আহত হলে প্রথমে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেয়া হলে ৫ দিন চিকিৎসাধীন থাকার পর সেখানেই তার মৃত্যু হয়।স্থানীয় ইউপি সদস্য আলমগীর সিকদার এ ঘটনার নিজে প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়ে বলেন, ‘স্থানীয় হাফেজিয়া আলতাফিয়া মাদ্রাসা ও এতিমখানায় এলাকার মানুষ একটি বিষয় নিয়ে বৈঠক বসে। বৈঠক শেষ হতে হতে রাত প্রায় ৩টা বেজে যায়। বৈঠক শেষে সবাই বাড়ি ফেরার পথে স্থানীয়রা মুখোশধারী দু’জন যুবক দেখতে পেয়ে তাদের দাঁড়াতে বলে। তারা না দাঁড়ালে পেছন থেকে স্থানীয়রা তাদের লক্ষ্য করে টর্চলাইটের আলো জ্বালালে তারা স্থানীয়দের ওপর অতর্কিত এক রাউন্ড গুলি ছুড়ে। গুলির শব্দে সবাই ছত্রভঙ্গ হয়ে পালিয়ে যায়। পরে এসে দেখা যায় শাহেদুল ইসলাম গুলিবিদ্ধ হয়েছে। শাহেদুলের পরিবারে স্ত্রী, ১ পুত্র ও ১ কন্যা সন্তান রয়েছে।রাঙ্গুনিয়া থানার এসআই ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা ইসমাঈল হোসেন জুয়েল বলেন, ‘এ ঘটনায় ঘটনার দিন বিকালেই থানায় মামলা দায়ের হয়েছিল। মামলাটি এখন হত্যা মামলায় পরিবর্তিত হবে। আমরা হত্যাকারীদের ধরতে অভিযান চালাচ্ছি।’সরফভাটা ইউপি চেয়ারম্যান শেখ ফরিদ উদ্দিন চৌধুরী বলেন, ‘সম্প্রতি সরফভাটায় চিহ্নিত একটি সন্ত্রাসী গ্রুপ আতংক ছড়িয়ে বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালাচ্ছে। আমি তাদের ব্যাপারে মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভা সহ প্রশাসনকে অবহিত করেছি। তারাই এ ধরনের ঘটনা বার বার ঘটাচ্ছে।’শাহেদুলকে যারা গুলি করে হত্যা করেছে তাদের আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: