আজ ৮ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৪শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শ্যামনগরে ডাকাত দলের ৩ সদস্য গ্রেপ্তার

আনিসুর রহমান: শ্যামনগর উপজেলার ধুমঘাট গ্রামের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মহাদেব চন্দ্র মন্ডলের বাড়িতে ডাকাতির ঘটনায় ৩ ডাকাত গ্রেপ্তার করেছে শ্যামনগর থানা পুলিশ। গত ২৩ মে গভীর রাতে মহাদেব চন্দ্র মন্ডলের বাড়িতে দুর্ধর্ষ ডাকাতী সংগঠিত হয়। ৯ সদস্যের ডাকাত দল দেশীয় অস্ত্রে¿ সজ্জিত হয়ে বাড়ির মালিক সহ পরিবারের সদস্যদের অস্ত্রের মুখে বেঁধে ফেলে নগদ ২৫ হাজার টাকা, ৬ ভরি সোনার অলংকার, দুইটি দামি মোবাইল সেট সহ ৩ লক্ষাধিক টাকার মালামাল নিয়ে যায়। এ ঘটনায় গৃহকর্তা মহাদেব চন্দ্র মন্ডল বাদী হয়ে অজ্ঞাত ৯/১০ জনের নামে শ্যামনগর থানায় ৩৯৫ ও ৩৯৭ ধারায় ডাকাতি মামলা করে, যাহার নং- ২৮, তাং- ২৩/০৫/২০১৯ ইং। মামলা দায়েরের দিন থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার কালিগঞ্জ সার্কেল জামিরুল ইসলাম ও শ্যামনগর থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ আনিসুর রহমান মোল্যার নির্দেশনায় মামলায় আইও এস,আই আব্দুর রাজ্জাক ঘটনার সঙ্গে জড়িতদের গ্রেপ্তারের জোর চেষ্টা অব্যহত রাখে। চেষ্টার ফলশ্র“তিতে গত ১৭ জুলাই ডাকাত দলের অন্যতম সদস্য উপজেলার কুলটুকরী গ্রামের লুৎফার গাজীর পুত্র বকুল গাজী (২৩) কে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয়। বকুলের স্বীকারক্তি অনুযায়ী গত ২০ জুলাই ডাকাত দলের সদস্য উপজেলার গৌরিপুর গ্রামের জবেদ আলী মিস্ত্রীর পুত্র আবুল খায়ের ওরফে বাবু মিস্ত্রী (২৫) কে পুলিশ গ্রেপ্তার করে। আবুল খায়ের ও বকুলকে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসা বাদে এক পর্যায়ে উপজেলার বাদঘাটা গ্রামের আবুল ম্যাথরের ছেলে কবির (২৩) সহ আরও ৬ জন ডাকাত সদস্যের নাম অকপাটে স্বীকার করে। পুলিশ ২৩ জুলাই ফরিদকে ও গ্রেপ্তার করে। পুলিশের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া বকুলের কাছ থেকে ১টি মোবাইল উদ্ধার করা হয় ও তার স্বীকারক্তি অনুযায়ী ঘটনাস্থলে অনতিদূরে খালের মধ্যে থেকে দুইটা বড় আকারের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার হয়। পুলিশ তদন্তের স্বার্থে বাকী ৬ জনের নাম গোপন রেখেছে বলে তদন্ত কর্মকর্তা জানান। শ্যামনগর ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ আনিসুর রহমান মোল্যা জানান ঘটনার সাথে জড়িত সকল আসামীদের গ্রেপ্তারের জোর তৎপরতা অব্যহত রয়েছে।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: