আজ ৪ঠা আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ১৯শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

রাড়–লীতে বিজ্ঞানী পিসি রায়ের জন্মদিন পালিত

বি এম আলাউদ্দীন বিশেষ প্রতিনিধি: পাইকগাছা উপজেলার জগত বিখ্যাত বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র (পিসি রায়) এর ১৫৮তম জন্মদিন পালিত হয়েছে। পাইকগাছা উপজেলা প্রশাসন ও রাড়–লি ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষ থেকে জন্মদিন পালনের লক্ষে শুক্রবার রাড়–লি গ্রামে পিসি রায়ের বাড়িতে দিনভর বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করেছেন। খুলনা জেলা প্রশাসক মোঃ হেলাল হোসেন এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা ৬-আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব আক্তারুজ্জামান বাবু। এসময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা পরিষদের নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আসাদুজ্জামান, সার্কেল এস এসপি আসাদুজ্জামান আসাদ, পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুলিয়া সুকায়না, মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার অধ্যক্ষ আবুল কালাম আযাদ, পিসি রায় স্মৃতি সংরক্ষন পরিষদের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ শাহাদাত হোসেন বাচ্চু, উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান  সিহাবউদ্দীন ফিরোজ ও লিপিকা ঢালী প্রমুখ। অনুষ্ঠানে বক্তাগন বলেন জগত বিখ্যাত বিজ্ঞানী আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র (পিসি রায়) খুলনা জেলার পাইকগাছা উপজেলার রাড়–লি গ্রামে ১৮৬১ সালের ২ আগষ্ট এক সম্ভ্রান্ত পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি একাধারে একজন শিক্ষক, প্রাজ্ঞ রাজনীতিক, সফল শিল্প শ্রষ্ঠা, সমাজ সেবক, সু- কবি, সাহিত্যিক, এবং বহু মাতৃক জ্ঞানের অধিকারী একজন দেশ প্রেমিক ছিলেন। তিনি বৈজ্ঞানিক জগদীশ চন্দ্র বসুর সহকর্মী ছিলেন। এছাড়া তিনি নিজের বাসভবনে দেশীয় ভেষজ নিয়ে গবেষণার মাধ্যমে তিনি তার গবেষণাকর্ম আরম্ভ করেন। তার এই গবেষণাস্থল থেকেই পরবর্তীকালে বেঙ্গল কেমিক্যাল কারখানার সৃষ্টি হয়। যা ভারতবর্ষের শিল্পায়নে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করে। স্যার পিসি রায় তার সমগ্র জীবনে মোট ১২টি যৌগিক লবণ ও ৫টি থায়োএস্টার এবং ১৮৯৫সালে মারকিউরাস নাইট্রাস আবিস্কার করে বিশ্বকে তাক লাগিয়ে দেন। আর এ কারণে তিনি নাইট উপাধিতে ভূষিত হন। স্যার পিসি রায় ১৯০৯ খ্রিস্টাব্দে নিজ জন্মভূমিতে একটি কো-অপারেটিভ ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেন। ১৯০৩ খ্রিস্টাব্দে বিজ্ঞানী পিসি রায় তার পিতার নামে ‘আর কে বি কে’ হরিশ্চন্দ্র স্কুল প্রতিষ্ঠা করেন। মায়ের নামে প্রতিষ্ঠা করেন ভুবন মহিনি বালিকা বিদ্যালয়, বাগেরহাট জেলায় ১৯১৮ সালে তিনি পি, সি কলেজ নামে একটি কলেজ প্রতিষ্ঠা করেন। যা আজ বাংলাদেশের শিক্ষা বিস্তারে বিশাল ভূমিকা রাখছে। ১৯৪৪সালের ১৬ জুন আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র (পিসি রায়) পরলোক গমন করেন। দিনভর বিভিন্ন অনুষ্ঠান শেষে উপজেলার বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন অতিথিবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: