আজ ২০শে শ্রাবণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৪ঠা আগস্ট, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আশাশুনি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা নিজেকে রাখাল আখ্যা দিয়ে অফিস স্টাফদের গরু সম্বোধন করায় সমালোচনার ঝড়

জামালউদ্দীন:: নিজে রাখাল! অফিস স্টাফদের গরু আখ্যা দিয়ে স্ট্যাটাসের পর শোক দিবসে আশাশুনি সমাজসেবা কর্মকর্তা সুমনা শারমিনের ফেসবুক বার্তায় সমালোচনা
অফিস স্টাফদের গরু ও তিনি নিজেকে রাখালের সাথে তুলনা করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে দেয়া স্ট্যাটাসের এক দিন পর সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সুমনা শারমিন সমালোচনায় ফের ঘি ঢাললেন। বুধবার ফেসবুকের নিজ একাউন্ট থেকে এমন সমালোচনাপূর্ণ স্ট্যাটাসের পর বৃহস্পতিবার জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকীর বিভিন্ন কর্মসূচীতে নিজের হাস্যোজ্জ্বল পোষ্ট সমালোচনায় নতুন মাত্রা যোগ করেছে।
পাঠকদের জন্য তার ফেসবুক টাইমলাইনের পোষ্টগুলি হুবহু তুলে ধরা হল, স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন, ইট’স সরকারি চাকরি, ম্যানৃ.সবাই যখন এই ঝুম বৃষ্টির দিনে খিচুড়ি-গোমাংসের রসনা তৃপ্তি উপভোগ করছে, আমি তখন (৩০+৯৯=) ১২৯ টি গরুকে (৩০ জন অফিশিয়াল স্টাফ আর ৯৯ জন মাস্টার রোলে নিয়োগপ্রাপ্ত স্টাফ ) নিয়ে শোক দিবসের প্রোগ্রামের প্রস্তুতি আর ক্যাপিটেশন গ্রান্ড নিয়ে অফিস সামলানোর আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি !!! রাখালই শুধু জানে, ১২৯ টা গরু পালার কী সুখ !!!!!
বিষয়টি দৃষ্টিগোচর হওয়ায় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের পাশাপাশি জেলা ব্যাপী নানা সমালোচনার ঝড় উঠে। এ ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই বৃহস্পতিবার জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধুর ৪৪ তম শাহাদাৎ বার্ষিকীতে উপজেলা প্রশাসনের নেয়া বিভিন্ন কর্মসূচিতেও তিনি বিভিন্ন জনের সাথে হাস্যোজ্জ্বল ছবি পোষ্ট দিয়ে ফের সমালোচনার জন্ম দিয়েছেন।
বেলা ১২টার দিকে আশাশুনি উপজেলা সমাজসেবা অফিসে অফিস সহায়ক তানভির হোসেন জানান, শোক দিবস উপলক্ষ্যে কিছু প্রতিবন্ধি উপকরণ ও চেক বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া বেশী কিছু আয়োজনে ছিল না। উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা ম্যাডামের ফেসবুক স্টাটাসের বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না বলেও জানান তিনি।
অন্যদিকে, একই অফিসের ফিল্ড সুপারভাইজার শাহিনুর ইসলামের নিকট জানতে চাইলে তিনি বলেন, সুমনা শারমিন আমাদের অফিসার। তিনি ফেসবুকে তাদেরকে গরু বলে সম্মোধন করেছেন এটা তিনি এখনো দেখেননি। না দেখা পর্যন্ত তিনিও ঐসময় বিষয়টি বিশ্বাস করতে পারেননি।
আশাশুনি উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সুমনা শারমিন এব্যাপারে সাংবাদিকদের বলেন, শোক দিবস উপলক্ষ্যে তিনজন প্রতিবন্ধির মাঝে উপকরণ ও ঋণের চেক দেওয়া হয়েছে। এছাড়া তিনজনকে উপবৃত্তির তিন হাজার টাকা করে চেক দেওয়া হয়েছে। আর শোক দিবসের র‌্যালী ও শ্রদ্ধাজ্ঞলী উপজেলা প্রশাসনের সঙ্গে একত্রে দেওয়া হয়েছে।
এব্যাপারে জেলা সমাজসেবা কর্যালয়ের উপ পরিচালক দেবাশীষ সরদার বলেন, আমার ফেসবুকটি বন্ধ থাকায় বিষয়টি তার দৃষ্টিগোচর হয়নি। আশাশুনি সমাজসেবা কর্মকর্তার কাছে জানতে চাইলে তিনি ফেসবুকে এমন স্ট্যাটাস দেননি বলে জানিয়েছেন। তবে ঘটনাটি খোঁজ খবর নিয়ে দেখছি বলেও জানান তিনি।
এব্যাপারে আশাশুনি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মীর আলিফ রেজা এ প্রতিবেদককে বলেন, সুমনা শারমিন ফোনে তাকে জানান যে, ফেসবুকে তিনি এমন ধরনের কোন স্ট্যাটাস দেননি। এসময় জাতীয় শোক দিবসে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি ও তাকে জানানো শ্রদ্ধাঞ্জলির সামনে দাঁড়িয়ে বিভিন্নজনের সাথে হাস্যোজ্জ্বল ছবি পোস্টের ব্যাপারে জানতে চাইলে তিনি বলেন, এমনটি হয়ে থাকলে বিষয়টি দুঃখজনক। এছাড়া এব্যাপারে তিনি তার জেলার উর্দ্ধতন কর্মকর্তাদের সাথে কথা বলতে বলেন। এদিকে শোক দিবসের ১ দিন পরেই শুক্রবার উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা সুমনা শারমিন নিজের পক্ষে সাফাই গাওয়ার মতো কোন কিছু না থাকায় নিজের ফেসবুক পেজটি সম্পূর্ণ ব্লক করে রেখেছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!