আজ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

শ্যামনগরের প্রধান সড়কের দুপাশ দখল করে চলছে বিভিন্ন ব্যবসা,মানুষ চলাচলে দূর্ভোগ

আব্দল আলিম,শ্যামনগর : শ্যামনগরের প্রধান সড়কের দুই পাশের সরকারি জায়গা দখল করে চলছে বিভিন্ন ধরনের ব্যাবসা। চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে সাধারণ পথচারীদের। প্রতিনিয়ত ঘটে চলেছে ছোটো থেকে জীবন হানির মত দুর্ঘটনা। 
শ্যামনগর উপজেলার বাস স্টাড ও  সন্নিকটে  সোনার মোড় এলাকার সি.এন্ড.বি. এর প্রধান সড়কে দুপাশে অবৈধ স্থাপনা তৈরী করে চলছে অবৈধ পন্থায় ব্যবসা। 
মূলত এইস ব্যাবসা চলছে উপজেলার সোনারমোড় এর মাছের সেটকে কেন্দ্র করে। কিন্ত এই সেটে মাছ কেনা বেচা কেন্দ্র করে যার আসছে তারা পড়ছে চরম বিপাকে। কারন রাস্তার দুই পাশের সরকারি জমি দখল করে রাখার কারনে যেমন পারকিং এর সমস্যা তেমন পথাচারিদের যাতায়াতে বাধাগ্রস্ত হচ্ছে প্রতিনিয়ত। 
এছাড়া এসব অবৈধ ব্যবসা পরিচালনার কারণে সাধারণ পথ যাত্রী থেকে শুরু করে মোটর সাইকেল, ভ্যান, বাস, ট্রাক সহ ইঞ্জিন চালিত যানবহন চলা-চলে ঘটছে প্রতিনিয়ত ছোট থেকে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। এলাকার মানুষের অভিযোগ প্রধান সড়কের পশ্চিম ও পূর্ব পার্শ্বে রাস্তা ঘেষে কিছু সংখ্যক অসাধু ব্যবসায়ীরা মুরগী, আটল,পাটা, মাছ, মাংস, তারিতরকারী সহ অন্যান্য জিনিসপত্র হর-হামেসা বিক্রি করছে। এর ফলে চলাচলে সাধারণ মানুষের চরম দূর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।
এলাকাবাসী সূত্রে  আরও জানা যায়, বর্তমানে প্রধান সড়কের দুপাশ দিয়ে চলাচলের জন্য সোনার মোড় এলাকাটি একেবারেই অনুপযোগী ও দূর্ঘটনা কবলিত এলাকা হিসাবে চিহ্নিত হয়েছে। এলাকার মানুষ এ বিষয়ে প্রধান সড়কের দুপাশ ফুটপথ দখলকারী অবৈধ  ব্যবসায়ীদের সাথে বিভিন্ন সময় মৌখিক ভাবে প্রতিবাদ করতে যেয়ে অনেকেই হেনস্থার স্বীকার হয়েছে । 
খোজ খবর নিয়ে জানা গেছে সড়কের দুপাশে রাস্তা ঘেষে অবৈধ পন্থায় শত শত দোকানীরা বিভিন্ন ব্যবসা পরিচালনা করছে। এদের সুযোগ করে দেওয়ার মূলে আছে স্থানীয় কিছু প্রভাবশালী মহল। সূত্রে জানাযায় এসব প্রভাবশালী মহলরা মাসিক হারে মোটা অংকের টাকা উৎকোচ নিয়ে পথচারীদের চলাচলের পথ রুদ্ধ করে ঐ সমস্থ অসাধু ব্যবসায়ীদের ব্যবসা পরিচালনার করার সুযোগ তৈরী করে দিচ্ছে। 
অতীতে সাতক্ষীরা সড়ক ও জনপথের তৈরী এ রাস্তাটির দুপাশ উম্মুক্ত ছিল। তখন পথচারী সহ যানবাহন নির্বিঘ্নে চলাচল ও যাতায়াত করত।
এলাকার মানুষের দাবী স্থানীয় প্রশাসন এসব অবৈধ স্থাপনা ও দোকানীদের প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক। তাহলে মানুষ অতীতের ন্যায় উম্মুক্ত ভাবে নির্বিঘ্নে চলাচল করতে পারবে। 
এঘটনায় শ্যামনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভুমি), জনাব নাহিদ হাসান কে বিষয়টি মুঠো ফোনে কলদিয়ে অবহিত করলে তিনি বলেন আমার কাছে লিখিত অভিযোগ দিলে আমি মোবাইল কোর্টের মাধ্যমে অভিযান পরিচালনা করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: