আজ ৫ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২১শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার ৮ ডিসেম্বর

২০১৭ ও ২০১৮ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান হবে আগামী ৮ ডিসেম্বর। বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে বিকেল সাড়ে তিনটায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। খবরটি তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (চলচ্চিত্র) মোঃ নজরুল ইসলাম নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, ‘ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানে থাকার জন্য সদয় সম্মতি দিয়েছেন। পুরস্কার বিতরণের পর সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও থাকবে।’ পুরো অনুষ্ঠানটি সরাসরি সম্প্রচার করবে বিটিভি এবং বিটিভি ওয়ার্ল্ড। গত ৭ নভেম্বর পুরস্কার বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করা হয়। ২০১৭ সালের আজীবন সম্মাননা পাচ্ছেন এ টি এম শামসুজ্জামান ও সুজাতা এবং ২০১৮ সালে আলমগীর ও প্রবীর মিত্র।


২০১৭ সালের সেরা অভিনেতা হিসেবে যৌথভাবে পুরস্কার পান শাকিব খান ও আরিফিন শুভ। শাকিব খান ‘সত্তা’ ও আরিফিন শুভ ‘ঢাকা অ্যাটাক’ ছবিতে অভিনয়ের জন্য এই পুরস্কার পাচ্ছেন। এই বছর ‘হালদা’ ছবিতে অভিনয় করে নুসরাত ইমরোজ তিশা পাচ্ছেন সেরা অভিনেত্রীর পুরস্কার। ২০১৮ সালের সেরা অভিনেতা হচ্ছেন যৌথভাবে ফেরদৌস ও সাইমন সাদিক। ফেরদৌস ‘পুত্র’ ও সাইমন ‘জান্নাত’ ছবির জন্য পুরস্কার পাচ্ছেন। ২০১৮ সালের ‘দেবী’র জন্য জয়া আহসান শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরস্কার পাচ্ছেন।

২০১৭ সালের সেরা ছবির পুরস্কার পাচ্ছে দীপংকর দীপনের ‘ঢাকা অ্যাটাক’ আর ২০১৮ সালে সাইফুল ইসলাম মান্‌নুর ‘পুত্র’। ‘গহীন বালুচর’ ছবির জন্য ২০১৭ সালের সেরা পরিচালকের পুরস্কার পাচ্ছেন বদরুল আনাম সৌদ আর ২০১৮ সালের ‘জান্নাত’ ছবির জন্য মোস্তাফিজুর রহমান।

এ ছাড়া ২০১৭ সালে অন্য বিভাগগুলোতে পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন সংগীত পরিচালক ফরিদ আহমেদ (তুমি রবে নীরবে), পার্শ্ব চরিত্রে অভিনেতা শাহাদাৎ হোসেন (গহীন বালুচর), খল চরিত্রে অভিনেতা জাহিদ হাসান (হালদা), পার্শ্ব চরিত্রে অভিনেত্রী সুবর্ণা মুস্তাফা (গহীন বালুচর), রুনা খান (হালদা), শিশুশিল্পী নাইমুর রহমান আপন (ছিটকিনি), শিশুশিল্পী শাখায় বিশেষ পুরস্কার অনন্য সামায়েল (আঁখি ও তাঁর বন্ধুরা), প্রামাণ্যচিত্র বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিশ্ব আঙিনায় অমর একুশে), শ্রেষ্ঠ কাহিনিকার আজাদ বুলবুল (হালদা), চিত্রনাট্যকার তৌকীর আহমেদ (হালদা), সংলাপ রচয়িতা বদরুল আনাম সৌদ (গহীন বালুচর), কৌতুক অভিনেতা এম ফজলুর রহমান (গহীন বালুচর), পুরুষ কণ্ঠশিল্পী জেমস (সত্তা), নারী কণ্ঠশিল্পী মমতাজ (সত্তা), গীতিকার সেজুল হোসেন (সত্তা), সুরকার বাপ্পা মজুমদার (সত্তা), চিত্রগ্রাহক কমল চন্দ্র দাস (গহীন বালুচর), শব্দগ্রাহক রিপন নাথ (ঢাকা অ্যাটাক), নৃত্য পরিচালক ইভান শাহরিয়ার সোহাগ (ধ্যাত্‌তেরিকি), সম্পাদক মোহাম্মদ কালাম (ঢাকা অ্যাটাক), শিল্পনির্দেশক উত্তম কুমার গুহ (গহীন বালুচর), রূপসজ্জায় জাভেদ মিয়া (ঢাকা অ্যাটাক) এবং শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জায় রিটা হোসেন (তুমি রবে নীরবে)।

২০১৮ সালের অন্যান্য ক্ষেত্রে শ্রেষ্ঠ পুরস্কারপ্রাপ্ত ব্যক্তিরা হলেন সংগীত পরিচালক ইমন সাহা (জান্নাত), পার্শ্ব চরিত্রে অভিনেতা আলী রাজ (জান্নাত), খল চরিত্রে অভিনেতা সাদেক বাচ্চু (একটি সিনেমার গল্প), পার্শ্ব চরিত্রে অভিনেত্রী সুচরিতা (মেঘকন্যা), শিশুশিল্পী ফাহিম মুহতাসিম (পুত্র), শ্রেষ্ঠ শিশুশিল্পী বিশেষ মাহমুদুর রহমান (মাটির প্রজার দেশে), প্রামাণ্যচিত্র ফরিদুর রেজা সাগর (রাজাধিরাজ রাজ্জাক), কাহিনিকার সুদীপ্ত সাইদ খান (জান্নাত), সংলাপ রচয়িতা হারুণ রশীদ (পুত্র), পুরুষ কণ্ঠশিল্পী নাইমুল ইসলাম রাতুল (পুত্র), নারী কণ্ঠশিল্পী সাবিনা ইয়াসমীন (পুত্র) ও আঁখি আলমগীর (একটি সিনেমার গল্প), গীতিকার কবির বকুল (নায়ক) ও জুলফিকার রাসেল (পুত্র), সুরকার রুনা লায়লা (একটি সিনেমার গল্প), নৃত্য পরিচালক মাসুম বাবুল (একটি সিনেমার গল্প), কৌতুক অভিনেতা মোশাররফ করিম (কমলা রকেট) ও আফজাল শরিফ (পবিত্র ভালোবাসা), চিত্রগ্রাহক জেড এইচ মিন্টু (পোস্টমাস্টার ৭১), শব্দগ্রাহক আজম বাবু (পুত্র), সম্পাদক তারিক হোসেন বিদ্যুৎ (পুত্র), শিল্প নির্দেশক উত্তম কুমার গুহ (একটি সিনেমার গল্প), রূপসজ্জায় ফরহাদ রেজা (দেবী) এবং শ্রেষ্ঠ পোশাক ও সাজসজ্জায় সাদিয়া শবনম (পুত্র)।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: