আজ ৭ই আশ্বিন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

আশাশুনির বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক ভ্যান শ্রমিক লাঞ্চিত \ প্রতিবাদে ভ্যান শ্রমিকদের বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ

বি এম আলাউদ্দীন বিশেষ প্রতিনিধি: আশাশুনি উপজেলার বড়দল ইউপি চেয়ারম্যান আব্দুল আলিম মোল্যা কর্তৃক এক
ভ্যান শ্রমিককে লাঞ্চিত করার প্রতিবাদে রবিবার সন্ধ্যায় ইউনিয়নের
গোয়ালডাঙ্গা বাজারে ভ্যান শ্রমিকরা বিক্ষোভ ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছে।
জানাগেছে, ইউনিয়নের বুড়িয়া গ্রামের আব্দুর রহিম গাজীর ছেলে
হাবিবুর রহমান তার ব্যাটারী চালিত অটো ভ্যান গত শনিবার সকালে বড়দলে
জৈনক হান্নান সানার অটো মিলের সামনে রেখে জরুরী ওষুধ কেনার জন্য
দোকানে যান। এসময় ইউপি চেয়ারম্যান ঐ পথ দিয়ে ইউনিয়ন পরিষদে যাওয়ার
পথে উক্ত স্থানে ভ্যান রাখা দেখে রাগান্বিত হন। এরপর তিনি ভ্যানে লাথি মেরে
রাস্তার পাশে ফেলে দেন এবং চৌকিদারকে লাঠি এনে ভ্যান শ্রমিক হাবিবুর
রহমান কে মারার জন্য নির্দেশ দেন। পরে ইউপি চেয়ারম্যান কর্তৃক ভ্যান
শ্রমিককে এভাবে লাঞ্চিত করার বিষয়টি জানাজানি হলে ইউনিয়নের সকল ভ্যান
শ্রমিকরা রবিবার সন্ধ্যায় গোয়ালডাঙ্গা বাজারের বকুল তলা চত্বরে এক বিক্ষোভ
ও প্রতিবাদ সমাবেশের আয়োজন করে। সভায় ব্যাটারী চালিত অটো ভ্যান
শ্রমিক এর সভাপতি আজহারুল গাজী, যুবলীগ নেতা এমএম সাহেব আলী,
ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সভাপতি নাহিদ রানা বাবু, সাধারণ সম্পাদক আবু
রায়হান সুমন সহ এলাকার সচেতন জনগন ও ভ্যান শ্রমিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।
এসময় শ্রমিকরা তাদের বক্তব্যে বলেন, আমরা শ্রমজীবী মানুষ। আমরা ভুল করতেই
পারি তাই বলে আমাদের ইউনিয়নের অভিভাবক হয়ে যে গাড়িতে আমাদের
সংসার চলে তাতে তিনি কিভাবে লাথি মারলেন? আমরা যথাযথ কর্তৃপক্ষের
কাছে এর সুষ্ঠ বিচার চাই। প্রতিবাদ সমাবেশ থেকে বক্তারা ইউপি
চেয়ারম্যানকে ৪৮ ঘন্টার মধ্যে প্রকাশ্য ক্ষমা চাওয়ার আল্টিমেটাম ঘোষনা
করেন। এসময় তারা বেধে দেওয়া উক্ত সময়ের মধ্যে চেয়ারম্যান ক্ষমা না চাইলে আরও
বৃহত্তর কর্মসূচী পালনের ঘোষনা দেন। এব্যাপারে অভিযুক্ত বড়দল ইউপি
চেয়ারম্যান আব্দুল আলিম মোল্যার কাছে জানতে চাইলে তিনি জানান,
হাবিবুর রহমান যেখানে ভ্যান রেখেছিলো সে জায়গাটি অনেক ব্যাস্ততম
হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার অটো ভ্যানের সাথে এ্যাক্সিডেন্ট করে একটি শিশু
মারা যায়। তারপর আমি উক্ত স্থানে ভ্যান না রাখতে সবাইকে নিষেধ করি। তারপরও
শনিবার উক্ত স্থানে ভ্যান রাখা দেখে চৌকিদার দিয়ে ভ্যানটি সরিয়ে দিই।
এসময় তিনি ভ্যানে লাথি মারার বিষয়টি মিথ্যা বলে দাবী করেন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: