আজ ৭ই কার্তিক, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ২৩শে অক্টোবর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ

বাড়িতে অবরুদ্ধ পারুলিয়ার ভুট্রো পরিবার সন্ত্রাসীদের ভয়ে স্কুলে যাচ্ছে না দুই ছেলে

নিজস্ব প্রতিবেদক: একটি সন্ত্রাসী বাহিনীর অত্যাচারে বাড়ি থেকে বাইরে বের হতে পারছেন না নুর ইসলাম ভুট্টো ও তার পরিবারের সদস্যরা। বাড়ি থেকে বের হবার গেট ও পথ বেড়া দিয়ে ঘিরে দিয়েছে স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদ সদস্যের এই সন্ত্রাসী বাহিনী। ভুট্টোর পরিবারের সকল সদস্যরা বাড়িতে অবরুদ্ধ হয়ে এখন আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছেন। স্কুলে যেতে পারছে না তার দুই ছেলে। ঘটনাটি ঘটেছে সাতক্ষীরা দেবহাটা উপজেলার পারুলিয়ার দীঘির কান্দায়।
দেবহাটা উপজেলার কুলিয়া গ্রামের মরহুম আবদুল বারী মোল্লার পুত্র নুর ইসলাম ভূট্টো। দিনমজুর এই ভুট্টো পারুলিয়ার দিঘির কান্দায় তার কষ্টার্জিত সঞ্চিত ২ লাখ ৫৫ হাজার টাকায় ৪ শতক জমি কেনেন। পারুলিয়া মৌজার এসএ ৩৯৫৫ ও বিআরএস ৮৬৬৪ দাগে এই জমি। জমি বিক্রি করেন পারুলিয়ার আব্দুল বারীর পুত্র আব্দুল আলিম ও তার স্ত্রী হেলালী বেগম। কিন্তু এই মালিকরা মিউটেশন করা হয়নি এই অজুহাতে জমি রেজিস্ট্রি কবলা দলিল করে দেননি। রেজিস্ট্রি না হলেও জমি দখল নিয়ে পাকা ঘর বাড়ি, রান্নাঘর ইত্যাদি নির্মাণ করে বসবাস করতে থাকেন। বসবাসকালীন জমি বিক্রেতারা তার অনুকূলে বায়নাপত্র লিখে দেন। এই জমির উপর চোখ পড়েছে পারুলিয়া ইউনিয়নের ৭ নম্বর ওয়ার্ডের সদস্য শহিদুল গাজীর। তিনি এই জমি এখন আর রেজিস্ট্রি করতে দিচ্ছেন না। জমি বিক্রেতাদের সাথে পরামর্শ করে ভুট্টোর পরিবারকে উচ্ছেদ করার প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন তার সন্ত্রাসী বাহিনীর সদস্য আজিম গাজী, আমিনুর রহমান, মোমিনুর রহমান, মফিজুর রহমান, আকবর গাজী ও শরিফুল ইসলামকে দিয়ে উচ্ছেদ করার চেষ্টা করছেন। জানয়ারি মাসের ১৮-১৯ তারিখে ভুট্রোর অনুপস্থিতিকে তার বাড়িতে হামলা চালিয়ে তার স্ত্রী নূরজাহান, ছেলে সজিব হোসেন ও মেহেদী হাসানকে ব্যাপক মারপিট করে। নুরজাহানকে মারপিট করে আহত করে। পুকুরের পানিতে চুবিয়ে দুই ছেলেকে মেরে ফেলার চেষ্টা করে। নুরজাহান সখিপুর হাসপাতাল ভর্তি হয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন। গত ২৩ জানুয়ারি হাসপাতাল থেকে ছাড়া পান। হামলার দিন তারা বেড়া দিয়ে ঘিরে দেয় তাদের বাড়ি থেকে বের হবার গেট ও রাস্তা। বর্তমানে ভুট্টোর পরিবারের সদস্যরা অবরুদ্ধ হয়ে আছে বাড়িতে। অপরের ধানের জমির আইল দিয়ে তারা যাতায়াত করছেন।
ভুট্টোর পরিবারকে উচ্ছেদ করার প্রচেষ্টা অব্যাহত রেখেছেন পারুলিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য শহিদুল গাজী। তার সন্ত্রাসীদের হুমকি ও মারপিটের ভয়ে ছেলে সজিব হোসেন ও মেহেদী হাসান স্কুলে যেতে পারছে না। স্ত্রী নূরজাহান মাজা সোজা করে চলাফেরা করতে পারছেন না। ভুট্টোর বিবাহিত দুই মেয়ে শারমিন ও শাহানাজ পারভীন তার বাড়িতে অবস্থান করছে। তারাই বাড়ির রান্নাবান্নার কাজ করে থাকেন। যাতে বাড়ি দখল করতে না পারে সে কারণে সদা সতর্ক রয়েছে এরা। এদিকে নুর ইসলাম ভূট্টো অবরুদ্ধ অবস্থা থেকে মুক্তি পাবার জন্য জেলা প্রশাসকের কাছে আবেদন করেছেন।

Leave a Reply

     এই বিভাগের আরও খবর
error: Content is protected !!
%d bloggers like this: